বিস্তারিত পোস্ট

ঢাকার সেরা শিশু নিউরোলজি ও অটিজম বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের তালিকা


প্রকাশিতঃ 24 November, 2022, বিভাগঃ সকল ডাক্তার, পঠিত হয়েছেঃ ৬২১ বার

ঢাকার সেরা শিশু নিউরোলজি ও অটিজম বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের তালিকাঃ

অধ্যাপক ডাঃ মুসতাফা মাহবুব
 
এমবিবিএস, ডিসিএইচ (আয়ারল্যান্ড), এফসিপিএস (শিশু)। ফেলোশীপ ইন চাইল্ড নিউরোলজী (লন্ডন)। প্রাক্তন অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান (শিশু নিউরোসায়েন্স বিভাগ)। ঢাকা শিশু হাসপাতাল এন্ড ইন্সটিটিউট, ঢাকা।
 

ডাঃ সেলিনা সুলতানা
 
এমবিবিএস, এমপিএইচ। শিশু ও অটিজম বিশেষজ্ঞ- ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, ঢাকা।
 

সহকারী অধ্যাপক ডাঃ ইয়ামিন শাহরিয়ার
 
এমবিবিএস, এমডি (পেডিয়াট্রিক নিউরোলজী)- ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব নিউরোসাইন্স, ঢাকা।
 

সহযোগী অধ্যাপ ডাঃ স্বপন কুমার পল
 
এমবিবিএস, এমএস (শিশু সার্জারী), এফএসিএস (আমেরিকা)। নবজাতক, শিশু ইউরোলজী এবং শিশু নিউরোসার্জারী বিশেষজ্ঞ। সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান (শিশু নিইউরোসার্জারী বিভাগ)- ঢাকা শিশু হাসপাতাল, ঢাকা।
 

সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ শেখ আজিমুল হক
 
এমবিবিএস (ঢাকা), এমডি (শিশুরোগ)। শিশু নিউরোলজীতে উচ্চতর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। সহযোগী অধ্যাপক- ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস অ্যান্ড হাসপাতাল, ঢাকা।
 

ডাঃ চৌধুরী মুহাম্মাদ ফুয়াদ গালিব
 
এমবিবিএস (ডিএমসি), এমডি (শিশু), বিসিএস (স্বাস্থ্য)। উন্নত প্রশিক্ষণ এনআইসিইউ, পিআইসিইউ। ক্লিনিক্যাল ফেলো, পিজিআইএমইআর, (চান্ডিগার, ইন্ডিয়া)। শিশু পুষ্টিতে উচ্চতর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। নবজাতাক ও শিশু বিশেষজ্ঞ (শিশু নিউরোলজি বিভাগ)- ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স এন্ড হসপিটাল।
 

 

  বিভাগ

  সর্বাধিক পঠিত

গ্যাস্ট্রিক আলসার কে চিরতরে বিদায় করার উপায়....



গ্যাস্ট্রিক আলসার, এই রোগটির সাথে সবাই খুব সুপরিচিত। আর এটি ডাক্তারি ভাষায় বলে পেপটিক আলসার ডিজিজ কিংবা গ্যাস্ট্রিক আলসার ডিজিজ বলা হয়। তবে সাধারন মানুষের কাছে এই রোগটি গ্যাস্ট্রিকের ব্যাথা, গ্যাসের ব্যাথা, পেটের আলসার, খাদ্যনালীর ঘা ইত্যাদি নামে পরিচিত। গ্যাস্ট্রিক আলসার রোগটি অগোছালো জীবন-যাপন, অনিয়মিত খাবার গ্রহণ, খাবার বাছাইয়ে অসতর্কতা ও অজ্ঞতা এ রোগের পিছনে বড় কারন।
 বিস্তারিত

ত্বকের সতেজতা ফিরিয়ে আনতে কী খাবেন....



শুধু নির্দিষ্ট কোনো অনুষ্ঠানের জন্য বা সাময়িকভাবে নয়, সারা জীবন ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য ধরে রাখতে নির্দিষ্ট একটা ডায়েট মেনে চলা উচিত। নিয়ম মেনে প্রতিদিনই সুষম খাবার খেতে হবে। বিশেষ করে যেগুলো খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় থাকে, সেগুলো প্রতিদিন খেতে হবে। এতে সব সময় ত্বক ভালো থাকবে। পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন ৩ থেকে সাড়ে ৩ লিটার। খেতে হবে দুধ, দই, স্যুপ, ফলের রসের মতো স্বাস্থ্যসম্মত তরল খাবার; যা ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। প্রতিদিন পরিমাণমতো ভিটামিন সি (লেবুজাতীয়), ভিটামিন কে (সবুজ শাকসবজি, মাছ, ডিম, সবজি, টমেটো, ডুমুর), ভিটামিন ই (বিভিন্ন ধরনের উদ্ভিজ্জ তেল, বিচি ও বাদামজাতীয় খাবার, ফল ও সবজি), ভিটামিন বি১২ সমৃদ্ধ ফল-সবজি, শাক; যা মলিন হয়ে যাওয়া ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে।
 বিস্তারিত

ঢাকার সেরা কিডনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এর তালিকা....



কিডনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার কিডনী জনিত সকল ধরনের রোগের যেমন, প্রস্ট্রেট বড়, প্রস্রাব ধারন ক্ষমতা কম, জন্মগত কিডনি ছোট-বড়, কিডনি সমস্যা জনিত শারীরিক সমস্যা, পায়ে পানি আসা ও ফুলে যাওয়া, প্রস্রাব কম-বেশী হওয়া রোগের চিকিৎসা করে থাকেন।
 বিস্তারিত